Advertise

শেষ বিদায়ের পাণ্ডুলিপি

 প্রকাশিত: ২০২০-০৪-২৩ ২৩:৩৪:০৭

মাসুদ পারভেজ:


মৃত্যুর পরে আমার নিষ্পলক দেহ
ফুলের খাটিয়াতে বয়ে নিয়ে যেয়ো
পদ্মপাতার ছাউনিতে সাজানো বাহন:
যেন একটা ফুলের শেষকৃত্যে পৌঁছানোর জন্য
প্রকৃতি মিলেছে নিথর বাঁশির ঐকতানে।


আমার শেষবিদায়ে নিমন্ত্রণ যেন ঘটে
ঝুমকো জবার। বেলিফুল আমার অতি পছন্দের।
বাদ যেন না যায় দূর্বাঘাসের আলতো ছুঁয়ে যাওয়া।
আমি ফুলের জলসাঘরে ঈষৎ ঘাড় ঘুরিয়ে গোলাপ কে বলে দেবো; কি কথা ছিল সূর্যমুখীর সুবাসে।

আনারসি রঙের বাহার যেন থাকে আমলকী ঘ্রাণে
ধানিরঙের চৌহদ্দি পেরুলেই মিলবে সোনামুখি সুঁই
আমার আবরণে মুখোশ খসে যাওয়ার যাতনা;
বিদীর্ণ হয়ে থাকা মৌসুমি বায়ু;
মুক্ত হয়ে যাবে আরও সন্দেশে।

আমায় দেখতে আসা লোকেদের কবিতার সাথে
রিনিঝিনি শব্দের আওয়াজ
ইথারে ভেসে যাবে কবিতার অমর পঙক্তিগুলো;
আমার মুণ্ডুপাত করুক, তবুও কোলাহলে
গান যেন গেয়ে যায় পরিযায়ী পাখিগুলো।

আনুষ্ঠানিকতা শেষে কিংবা তার আগে
মাটি ফেলা হোক কবিতার শরীরে
আকাশে বাতাসে ছড়িয়ে যাক আঙুরফলের গান;
লাল-লাল খাঁচা ভেঙে আসবে কবিরা;
আসবে নাজিম হিকমতের জেলখানা
কিংবা নেরুদার বোনা লালজামা।


বিলাপে মেতে থাকা লোকেদের মুখে তুলে দিও
মাওলানার নৃত্য শামসের আলখাল্লা আর বিলালের আনুগত্য
সবাই যেন গেয়ে যায় একসাথে;
সবার উপরে মানুষ সত্য।

শেষে,
গোরের চারপাশে পুঁতে দিয়ো আবে হায়াতের জল
উপরে আসমান আর নিচে সোনারঙ মাটি
ভেতরে থাকা মানুষটা হয়তোবা ছিল খাঁটি।

আপনার মন্তব্য